করোনা থেকে মুক্তি পেতে মুসলিম পাড়ায় মুম্বাই পুলিশের মাইকিং এর ভিডিও ভাইরাল (ভিডিওসহ)

প্রকাশিত: ৮:৪৯ অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৫, ২০২১ | আপডেট: ৮:৫১:অপরাহ্ণ, এপ্রিল ২৫, ২০২১
মুম্বাই পুলিশ কাল মাইক নিয়ে মুসলমান পাড়ায় পাড়ায় করোনা থেকে মুক্তি পেতে মুসলমানদের কাছে অনুরোধ করছে।  ভিডিওতে এক মুম্বাই পলিশ অফিসার কে বলতে শোনা যায়-
‘হে মুসলিম ভাই বোনেরা আপনাদের কাছে কড়জোড়ে হাত জোড় করে বলছি নামাজের পরে সবাই আল্লাহর কাছে দোয়া করুন।আমি শুনেছি আল্লাহ রোজাদারদের দোয়া ফেলতে পারেন না।’

নডিটিভির সূত্রে জানা যায়, এ অবস্থায় ভারতজুড়ে অক্সিজেন স্বল্পতার জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের অসহযোগিতাকে দায়ী করেছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। জবাবে, টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচারিত বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে রাজনীতি না করার অনুরোধ জানান দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

দিল্লিজুড়ে করোনায় মৃতের হারের ঊর্ধ্বগতির মধ্যেই শুক্রবার রাজধানীর বিভিন্ন গোরস্থানে গণকবর খুঁড়তে দেখা যায়। একইসঙ্গে, গণহারে সৎকার চলে শহরের প্রধান শ্মশানগুলোতেও। মরদেহ সমাহিত করার জায়গা পেতে হিমশিম খেতে হচ্ছে করোনায় মৃতদের পরিবারকে।

ভারতজুড়ে করোনার সর্বোচ্চ সংক্রমণের মধ্যেই অক্সিজেনের তীব্র সংকট এবং চলমান পরিস্থিতি মোকাবিলায় কোভিড প্রবণ ১১টি রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে শুক্রবার ভার্চুয়াল বৈঠকে অংশ নেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এসময়, সংক্রমণ রুখতে প্রয়োজনীয় দিক নির্দেশনার পাশাপাশি কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে সব ধরনের সহায়তার আশ্বাস দেন মোদি।

এছাড়াও, বৈঠকে অক্সিজেন সংকটের জন্য কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ আনেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। জবাবে, জাতির সংকটময় মুহূর্তে বিষয়টি নিয়ে রাজনীতি না করার অনুরোধ জানান প্রধানমন্ত্রী মোদি।

গনহারে পোরানো হচ্ছে করোনায় মৃতদের

এরমধ্যেই, প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধে ভারতজুড়ে অক্সিজেন সংকট দূর করতে উৎপাদন বাড়ানোর উদ্যোগ শুরু করেছে সরবরাহকারী প্রতিষ্ঠানগুলো।

দেশজুড়ে অক্সিজেনের তীব্র সংকট। আমাদের হাতে পর্যাপ্ত লিকুইড নেই। আর এ কারণেই আমরা হাসপাতাল ছাড়া আপাতত কারও কাছে সিলিন্ডার বিক্রি করছি না। কেননা ব্যক্তিগত পর্যায়ে সিলিন্ডার সরবরাহ না করতেও কেন্দ্র থেকে নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

এদিকে, বিভিন্ন রাজ্যের হাসপাতালগুলোতে শয্যা সংকট দূরত করতে এরইমধ্যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ।

এরই মধ্যে বিশ্বে করোনায় মৃতের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৩০ লাখ ৯৯ হাজার এবং আক্রান্ত হয়েছে ১৪ কোটি ৬২ লাখেরও বেশি মানুষ। গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বব্যাপী সর্বোচ্চ ৮ লাখ ৯৬ হাজার ৯২২ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ ছাড়া মারা গেছেন আরও ১৪ হাজার ২১৮ জন।

মৃতদেহ পোরানোর সিরিয়াল

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও প্রাণহানির পরিসংখ্যান রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডওমিটারের তথ্যানুযায়ী, শনিবার (২৪ এপ্রিল) সকাল পর্যন্ত গত ২৪ ঘণ্টায় বিশ্বে মারা গেছেন ১৪ হাজার ২১৮ জন এবং নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৮ লাখ ৯৬ হাজার ৯২২ জন। এ নিয়ে বিশ্বে মোট করোনায় মৃত্যু হয়েছে ৩০ লাখ ৯৯ হাজার ৩১৫ জনের এবং আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ কোটি ৬২ লাখ ২৬ হাজার ৩৫০ জন। এ ছাড়া সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১২ কোটি ৪০ লাখ ১৮ হাজার ৪৬৬ জন।

করোনায় এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ও মৃত্যু হয়েছে বিশ্বের ক্ষমতাধর দেশ যুক্তরাষ্ট্রে। তালিকায় শীর্ষে থাকা দেশটিতে এখন পর্যন্ত করোনা সংক্রমিত হয়েছেন ৩ কোটি ২৭ লাখ ৩৫ হাজার ৭০৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ৫ লাখ ৮৫ হাজার ৭৫ জনের।

আক্রান্তে দ্বিতীয় ও মৃত্যুতে তৃতীয় অবস্থানে থাকা ভারতে এখন পর্যন্ত সংক্রমিত হয়েছেন এক কোটি ৬৬ লাখ দুই হাজার ৪৫৬ জন এবং মারা গেছেন এক লাখ ৮৯ হাজার ৫৪৯ জন।