চুনারুঘাটে সোনাতুলা রাস্তাটির বেহাল দশা জনসাধারণের দূর্ভোগ চরমে।

প্রকাশিত: ৬:১৪ অপরাহ্ণ, জুলাই ২১, ২০২০

ফরিদ উদ্দিন মাসউদ হবিগঞ্জ প্রতিনিধি ।
“হবিগঞ্জ জেলার, চুনারুঘাট উপজেলার ১০নং মিরাশী ইউনিয়নের, ৫নং ওয়ার্ডে সোনাতুলা গ্রামের রাস্তাটি, খানা খন্দে ভরে যাওয়ায়, বড় বড় গর্ত হয়ে ভোগান্তিতে পড়েছেন এলাকার সাধারণ জনগণ। উপজেলার মিরাশী ইউনিয়নের সোনাতুলা, দ্ধারাগাঁও, রূপসপুর, হুরপাড়া, ভোলারজুম, আমতলা,পীরপুর, গ্রামের জনসাধারণের উপজেলা সদর চুনারুঘাট বাজার ও নালমুখ বাজার, যাওয়ার একমাত্র যোগাযোগ মাধ্যম এই রাস্তাটি। কিছুদিন ধরে বৃষ্টিপাত হওয়ার কারণে রাস্তাটি চলাচলের একেবারেই অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। দীর্ঘ ৩ কি: মি: রাস্তাটি দিন দিন চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। এটি অত্যন্ত জনগুরুত্বপূর্ণ রাস্তা।

এই রাস্তা দিয়ে ছোট ছোট যানবাহান টমটম, অটোরিক্সা খুবই ঝুঁকি নিয়ে প্রতিদিন চলছে। গ্রামগঞ্জের সাধারণ মানুষ এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন চলাচল করে থাকেন। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, রাস্তার প্রায় ৯০ শতাংশ স্থানে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। প্রতিদিন এই রাস্তা দিয়ে,জামিয়া ইসলামীয়া হাফিজিয়া গোয়াছপুর মাদরাসা, সাবিহা চৌধুরী উচ্চ বিদ্যালয়,নালমুখ বাজার, গোয়াছপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, মুছিকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের এই রাস্তা দিয়েই যাতায়াত করতে হয়। টমটম ও অটোরিক্সা চালকরা একত্রিত হয়ে বেশ কয়েকবার রাস্তার যেখানে খুব বেশি ভাঙ্গা সেখানে ইট বালু ফেললেও বর্তমানে প্রচুর বৃষ্টিপাত হওয়ার কারণে রাস্তাটির অবস্থা আরো বেহাল দশা ধারণ করেছে। এই রাস্তা দ্রুত সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন হাজারো ভুক্তভোগী সাধারণ এলাকাবাসীরা।

রাস্তায় বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। একটু বৃষ্টি হলেই রাস্তার খানাখন্দে পানিতে ভরে যায়। অসংখ্য সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ও শিক্ষক, সরকারি চাকুরীজীবি ও ব্যবসায়ী সহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকজনকে এই রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে হয়। সোনাতুলা গ্রামবাসী সহ হাজারো মানুষের চলাচলের একমাত্র মাধ্যম এই সড়কটি। বিগত কয়েক বছর পূর্বে গুরুত্ব বিবেচনা করে পাকাকরণ হবে বলে ধারনা করা হয়েছিল। কিন্তু আজ পর্যন্তও রাস্তাটি সংস্কার করা হয়নি। তাই খানাখন্দে ভরে গিয়ে দিন দিন উক্ত রাস্তাটি চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এই সড়কে প্রতিদিন এলাকার অর্ধ শতাধিক টমটম ও অটোরিক্সা চলাচল করে।

টমটম ও অটোরিক্সা চালকদের পরিবারের জীবিকা নির্বাহ করার একমাত্র বাহন এই রাস্তাটি। টানা বর্ষণে রাস্তাটি আরো বেহাল দশায় পরিণত হয়েছে। এ ব্যাপারে চুনারুঘাট উপজেলা প্রকৌশলী মিশুক কুমার দত্ত’র সাথে আলাপকালে তিনি জানান, পর্যায়ক্রমে সোনাতুলা রাস্তাটি, পাকা করন ও ইট সলিং সহ মাটি ভরাটের কাজ করা হবে। মিরাশী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: রমিজ উদ্দিন সাহেবের সাথে যোগাযোগ করা হলে, তিনি ও রাস্তাটি পাকা করনের কথা বলেছেন। উক্ত রাস্তাটি জরুরী ভিত্তিতে পাকা করার জন্য উপজেলা চেয়ারম্যান, জনাব, আলহাজ্ব আব্দুল কাদির লস্কর ও ইউ পি, চেয়ারম্যান, জনাব, আলহাজ্ব রমিজ উদ্দীন, মহোদয়ের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন এলাকার সচেতন মহল।

Facebook Comments