বাবরি মসজিদ মামলার রায় নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কবিতা

প্রকাশিত: ১০:১৪ পূর্বাহ্ণ, নভেম্বর ১৩, ২০১৯

ভারতের অযোধ্যার বাবরি মসজিদ মামলায় সুপ্রিম কোর্টের রায় নিয়ে কবিতা লিখেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে এ কবিতায় অযোধ্যা, বাবরি মসজিদ ও সুপ্রিম কোর্ট এ শব্দগুলো উল্লেখ করেননি তিনি।

আগেই তৃণমূলের নেতাদের এ স্পর্শকাতর বিষয়ে কথা না বলতে নিষেধ করেছিলেন মমতা। তারা কথা রেখেছেন। তবে রায়ের পর দিনশেষে কবিতা লিখে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশ করেন তিনি

না বলা

অনেক সময়

কথা না বলেও

অনেক কথা বলা হয়ে যায়।

কিছুর বলার থেকে

না বলাটা

আরও শক্তিশালী বলা।

খিদে পেলে

খাবার না পেলে

খিদের ‘ক্ষুদা’ বোঝা যায়।

তেমনি ঘুমের সময়

ঘুম না পেলে

ঘুমের মর্ম বোঝা যায়।

দাঁত থাকতে

যেমন দাঁতের মর্ম

মর্মর গাঁথায় লেখা থাকে,

তেমনি কষ্ট পেলে

‘কষ্টমর্ম’ প্রতি ছত্রে

গাঁথা থাকে।

মনের কথা

প্রকাশ না পেলে

কথা ‘ব্যথার’ উদ্রেক করে,

যা মানসিক দূষণ বাড়ায়।

বলা হয়ে গেলে খুলে যায় দ্বার-

কথা-কথায় কথা বলে।

আর না বলতে পারাটা

অতীব যন্ত্রণা।

ওটা তো হৃদয়ের শক্তিশেল-

জমা থাকে।।

শনিবার ভারতের সর্বোচ্চ আদালতের দেওয়া রায়ে বিরোধপূর্ণ ওই ভূমিতে হিন্দুদের জন্য মন্দির নির্মাণের নির্দেশ দেওয়া হয় এবং সেটা তদারকির জন্য একটি ট্রাস্ট গঠনের কথা বলা হয়। এর পরিবর্তে মুসলিমদের মসজিদ নির্মাণের জন্য অযোধ্যারই অন্য কোনও স্থানে ৫ একর ভূমি বরাদ্দ দেওয়ার নির্দেশনা দেওয়া হয়।

আদালতের রায়ের তিন দিন আগে তপসিয়ায় তৃণমূল ভবনে দলের বৈঠক ডেকে দিদি বলেছিলেন, ‘অযোধ্যা রায় স্পর্শকাতর বিষয়। রায় ঘোষণার পর কেউ এ বিষয়ে কথা বললেন না।’ শনিবার অযোধ্যা মামলার রায় ঘোষণার পর দেখা গেল তৃণমূলের নেতারা কথা রেখেছেন। কেউ কোনও মন্তব্য করেননি। তবে লিখে প্রকাশ করেছেন মমতা। কবিতায় মূল কথা হল—‘অনেক সময় কথা না বলেও অনেক কথা বলা যায়।’

Facebook Comments